যুদ্ধশঙ্কা জাগিয়ে রেখেই বিদায় ২০১৭

ফিরোজ হোসেন: তৃতীয় বিশ^যুদ্ধ বাধেনি। কিন্তু, বিশ^জুড়ে যুদ্ধ, সংঘাত আর সংগ্রাম নেই কোথায়? মধ্যপ্রাচ্যে, দূরপ্রাচ্যে? এশিয়ায়, আফ্রিকায়? লাতিন আমেরিকায়, ইউরোপে? কোথায় অস্ত্র চলছে না? খ- খ- এলাকাজুড়ে যুদ্ধ চলছে। স্বাধীকারের আন্দোলন চলছে।  স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চলছে। বছরের পর বছর ধরে মধ্যপ্রাচ্য অস্থির। আফগানিস্তানে যুদ্ধ চলছে। স্পেনে চলছে কাতালানদের সংগ্রাম। ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াই কি থেমে গেছে? চারিদিকে এমন যুদ্ধ যুদ্ধ খেলার ভেতরে কিন্তু একটা বিশ^যুদ্ধ বাঁধার শঙ্কা থেকেই গেলো। মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জিম ম্যাটিস ২৪ ডিসেম্বর তার দেশের সেনাদের যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তত থাকতে বলেছেন। নর্থ ক্যারোলিনায় স্থল ও বায়ু সেনাদের এক সমাবেশে ম্যাটিসের মন্তব্য ছিলো, ‘ঝড়ো মেঘ জড়ো হচ্ছে।’ এতো শঙ্কাজাগানিয়া বক্তব্যের পরও নিশ্চিত বলা যায়, ২০১৭ সালে মার্কিন বনাম উত্তর কোরিয়ার সেনা যুদ্ধটা আর হচ্ছে না।  সেটি বাকযুদ্ধে সীমাবদ্ধ থাকবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে উত্তর কোরিয়ার এই শত্রুতার বাইরেও বিশ^জুড়ে আরো কিছু ঘটনা আছে, যেগুলো পাঠকের জন্য তুলে ধরছি।

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ না বাঁধলেও সংঘাত ও সংগ্রামের নানা ঘটনা প্রবাহের মধ্য দিয়ে শেষ হলো আরো একটি বছর। বিদায়ী এ বছরে বিশ্ব রাজনীতির বেশ কিছু ইস্যু নিয়ে সরগরম ছিলো আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। ২০১৭ সালের আন্তর্জাতিক রাজনীতির অনেকগুলো আলোচিত ঘটনার মধ্য থেকে কয়েকটি তুলে ধরা হল।

চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। শপথের দিন থেকেই বিভিন্ন বক্তব্য ও কর্মকা-ের জন্য বিশ্ব গণমাধ্যমে আলোচিত ছিলেন তিনি। মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ, যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা, আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জোট থেকে বেরিয়ে যাওয়াসহ নানা সিদ্ধান্তের কারণে খবরের শিরোনামে থাকেন তিনি।

আর সিরিয়া ও ইরানসহ মধ্যপ্রাচ্যের নানা ঘটনা প্রবাহ, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন ও ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্ক ইস্যুতে আলোচনায় আসেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। রাজধানী মস্কোয় সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতিবিরোধী বিক্ষোভ করায় বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনিকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় সমালোচনায় পড়েন তিনি। সেইসঙ্গে, অতর্কিত সিরিয়া সফর করে নিজেদের সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে আলোচনায় আসেন পুতিন।

ধারাবাহিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে বরাবরের মতোই বিদায়ী বছরে আলোচনায় উত্তর কোরিয়া। তবে, যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানতে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে পিয়ংইয়ংয়ের, এমন ঘোষণায় বেশ নড়েচড়ে বসে ট্রাম্প প্রশাসন। এ ঘটনায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুমকি ও কিম জং উনের পাল্টা হুমকি দৃষ্টি কাড়ে বিশ্ববাসীর।

ফ্রান্সের ৫৯ বছরের রাজনীতির হিসেব পাল্টে দিয়ে দেশটির কনিষ্ঠতম প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে আলোচনায় আসেন ইমানুয়েল ম্যাক্রোন। অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদদের পেছনে ফেলে মধ্যপন্থি নতুন প্রেসিডেন্টের এ জয় উজ্জীবিত করে অভিবাসীদের।

চলতি বছরের মে মাসেই আবারও ইরানের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেন হাসান রুহানি। পরমাণু ইস্যুতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের সঙ্গে করা তেহরানের চুক্তি বজায় রাখার পক্ষে অটল থাকেন তিনি।

বিদায়ী বছর নানাভাবে আলোচনা ও সমালোচনায় আসে সৌদি আরব। ইয়েমেনে অভিযান অব্যাহত রাখা, ক্রাউন প্রিন্সকে সরিয়ে দেয়া, দুর্নীতির অভিযোগে প্রভাবশালী যুবরাজ, মন্ত্রী ও সামরিক কর্মকর্তাদের গ্রেফতারের ঘটনায় বছরজুড়েই আলোচনায় থাকে মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশটি। রাজতান্ত্রিক দেশটিতে যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের একচ্ছত্র আধিপত্য ছিলো চোখে পড়ার মতো। এছাড়া, নারীদের গাড়ী চালঅনোর অনুমতি দেয়ার মাধ্যমে আলোচনায় কম যায় না মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশটি।

জুনে কাতারের ওপর প্রতিবেশী ৪ দেশের আরোপ করা নিষেধাজ্ঞায় মারাত্মক কূটনৈতিক টানাপোড়েনে পড়ে মধ্যপ্রাচ্য। সন্ত্রাসবাদে মদদ দেয়ার অভিযোগে সৌদি আরবের নেতৃত্বে মিশর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যপ্রাচ্য সফরের মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে ওই পাঁচ দেশ থেকে এই ঘোষণা আসে। কারণ মধ্যপ্রাচ্যে কাতারকে একঘরে করার জন্য কৃতিত্ব নিজের বলেও দাবি করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

চলতি বছর আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু রোহিঙ্গা ইস্যু। জাতিসংঘ, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ও ওআইসিসহ বিভিন্ন সম্প্রদায়ের আহবান উপেক্ষা করে মিয়ানমারের রাখাইনে চলছে মির্মম নিধনযজ্ঞ। হিউম্যান রাইটস ওয়াচ স্যাটেলাইটের ছবি বিশ্লেষণ করে বলছে, রাখাইনে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে রোহিঙ্গাদের ৩৫৪টি গ্রাম। জীবন বাঁচাতে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে সাড়ে ৬ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা।

বছরের অন্যতম আলোচিত বিষয় ছিলো স্পেন থেকে আলাদা হতে কাতালোনিয়ার গণভোট। ১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ওই গণভোটে স্বাধীনতার পক্ষে কাতালানদের রায় গেলেও স্পেনের কেন্দ্রীয় সরকারের কঠোর অবস্থানের কারণে তা ভেস্তে যায়। পদচ্যুত হন কাতালান নেতা চার্লস পুজমন্দ। পালিয়ে আশ্রয় নেন বেলজিয়ামে।

অক্টোবরে কমিউনিস্ট পার্টির কংগ্রেস অধিবেশনে আবারও চীনের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পান শি জিনপিং। এর মধ্য দিয়ে মাও সেতুংয়ের পর দেশটির সবচেয়ে ক্ষমতাবান নেতা হিসেবে আলোচনায় আসেন তিনি।

বছরের শেষদিকে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানীর স্বীকৃতি দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যকে সংঘাতের দিকে ঠেলে দিয়ে আবারও বিশ্ব সম্প্রদায়ের তোপের মুখে পড়েন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফিলিস্তিনিদের অধিকারের দাবি নিয়ে বিশ্বজুড়ে দানা বাঁধে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ। বিষয়টি নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদ ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ হলে ডাকা হয় জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের জরুরি বৈঠক। অধিবেশনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিপক্ষে অবস্থান নেয় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে ভোট দেয় ১২৮টি সদস্য রাষ্ট্র। আর যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে ভোট দেয় ইসরাইলসহ ৯টি দেশ। ভোটদানে বিরত থাকে কানাডাসহ ৩৫টি রাষ্ট্র।

নামী-দামি অভিনেত্রীদের যৌন নিগ্রহের খবরে বছর জুড়েই উত্তাপ ছিলো হলিউড পাড়ায়। প্রযোজক হার্ভি ওয়েনিস্টনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন বেশ কজন খ্যাতিমান অভিনেত্রী। যা পরে সোশাল মিডিয়ায় হ্যাশট্যাগ ‘মি টু’ নামে পরিচিতি পায়। এটি পরবর্তীতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পসহ আরো নয় ব্যক্তি ও আন্দোলনকে পেছনে ফেলে পারসন অব দ্য ইয়ার ২০১৭ জিতে নেয়।

Recommended For You