মক্কেলের স্ত্রীকে মসজিদে হাত পাতার পরামর্শ আইনজীবীর!

নিউ ইয়র্ক অফিস: “শুক্রবার মসজিদে যাবেন। সেখানে মুসুল্লিদের কাছে সাহায্য চাইবেন। দুই তিন জুম্মা হলে আমার বাকি টাকা উঠে যাবে। কমিউনিটি নেতাদের কাছেও যান। তাদের বলুন আপনাকে সাহায্য করতে।”
এ হলো নিউ ইয়র্কে এক বাংলাদেশী এটর্নির পরামর্শ তার মক্কেলের স্ত্রীকে। চলতি ঘটনা।

মক্কেল যুক্তরাষ্ট্র থেকে বহিষ্কারের আদেশ মাথায় নিয়ে আটক আছেন ডিটেনশন সেন্টারে। বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত স্ত্রী মার্কিন নাগরিক। বাচ্চারাও। স্বামীর বহিষ্কারাদেশ ঠেকাতে ২৫ হাজার ডলার খরচ চেয়েছেন আইনজীবী। এমনি সময়ে জীবন বাদে সবইতো দিয়ে দেয় মানুষ।
৮ হাজার ডলার নগদ দেয়া হয়েছে সেই আইনজীবীকে। ধারদেনা করে যা যোগাড় করেছিলেন, তুলে দিয়েছেন আইনজীবীর হাতে। কিন্তু, তিনি চান সব অর্থ। আইনজীবীর প্রশ্ন, “টাকা এনেছেন?” জবাব না হলে আর মক্কেল বা তার প্রতিনিধিকে পাত্তাই দেন না তিনি।

আইনজীবীদের হাতে অথবা অন্য কোনভাবে কেউ প্রতারিত বা শোষিত হলে আইনের আশ্রয় নেয়া যায়। কিন্তু, বেড়ালের গলায় ঘন্টা বাঁধার লোক পাওয়া খুব কষ্টের। আইন অনুযায়ী, একজন আইনজীবীকে মাসে ১৫ ঘন্টা বিনামমূল্যে শ্রম দিতে হয়। সে শ্রমে এ পরিবারের বিপদমুক্তির চেষ্টা করা কঠিন কোন কাজ নয় ওই আইনজীবীর জন্যে।

সবচেয়ে বড় কথা, একটি বহিষ্কারাদেশ নিয়ে আদালতে লড়াইয়ে একজন আইনজীবী ২৫ হাজার ডলার খরচ চেয়েছেন, শুনে চোখ কপালে তোলেন অনেক সাদা চামড়ার আইনজীবীও।

Recommended For You