নিরাপদ আশ্রয়ে ছুটছে মানুষ, সন্দ্বীপের আশ্রয় কেন্দ্রে এসেছে দশ হাজার

Image may contain: one or more people, people standing and outdoor

চট্টগ্রাম: ঘুর্ণিঝড় মোরা ধেয়ে আসার প্রেক্ষিতে সন্দ্বীপসহ চট্টগ্রামের ছয়টি উপজেলায় প্রায়  লক্ষাধিক মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রগেুলোতে অবস্থান নিয়েছে। সোমবার রাত আটটা পর্যন্ত আশ্রয় কেন্দ্রে আসা মানুষের এই তথ্য দিযেছে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসন।যার মধ্যে সন্দ্বীপে আশ্রয় কেন্দ্রে এসে উঠেছে দশ হাজার মানুষ।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক খোরশেদ আলম জানিযেছেন, সন্ধ্যার পর অল্প অল্প করে  বাতাস বাড়তে থাকায় মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রমুখী হয়েছে, মঙ্গলবার সকাল থেকে আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে শুকনো খাবারসহ অনান্য ত্রান সামগ্রী বন্টন করা হবে ।”

তিনি আরো জানান, চট্টগ্রামের ছয়টি উপকূলীয় উপজেলার মধ্যে বিছিন্ন সন্দ্বীপের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি রাখা হচ্ছে, সেখানে ইতোমধ্যে দশ হাজার মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে এসে উঠেছে, অন্য উপজেরাগুলোর মত সন্দ্বীপেও এক মেট্রিকটন চাল ও ৫০হাজার টাকা নগদ বরাদ্দ দেয়া হযেছে।

ঘুর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি নিরুপন করে প্রয়োজনীয় ত্রান সামগ্রী পাঠানোর জন্য কোষ্টগার্ডের একাধিক জাহাজকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে, সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীকে ও প্রযোজনে কাজে লাগানো হবে, উল্লেখ করেন তিনি।

এদিকে, সোমবার সন্ধ্যার পর থেকে পশ্চিম উপকূল থেকে মানুষ যে যেভাবে পাড়ছে নিরাপদ আশ্রয়ে ছুটছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

রহমতপুর এলাকা থেকে এবিএস লিটন জানিয়েছেন, একান্ত অসহায় মানুষজনই কেবল আশ্রয় কেন্দ্রে যাচ্ছে।অন্যরা পূর্ব ও মধ্য সন্দ্বীপে আত্মীয় স্বজনরেদর বাড়ীতে চলে যেতে দেখা যাচ্ছে। সন্ধ্যার পর থেকে এই পরিস্থিতি বলে লিটন জানান।

সন্দ্বীপের উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা গোলাম জাকারিয়া বলেছেন, ইতোমধ্যে জোরপূর্ব হলেও ঝুঁকিপূর্ণ মানুষদের সরিয়ে নেয়া হচ্ছে, পর্যাপ্ত সংখ্যক আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত আছে, ইতোমধ্যে অনেক মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে এসে উঠৈছে।

হ্যারিকেনের তীব্রতা সম্পন্ন ঘুর্ণিঝড় মোরা উপকূলীয় এলাকার দিকে ধেয়ে আসার প্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের দশ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারি করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সোমবার সন্ধ্যা ছয়টায় ঘূর্ণিঝড়টি চট্টগ্রাম থেকে ৩৮৫কিলোমিটার ও কক্সবাজার থেকে ৩০৫কিলোমিটার দক্ষিন, দক্ষিন পশ্চিমে অবস্থান করছিলো। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে উত্তর, উত্তর পূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে।

মঙ্গলবার সকাল নাগাদ এটি কক্সবাজার-  চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

এসএন।

Recommended For You