কফি নিয়ে তুলকালাম!

যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি: কফি নিয়ে তুলকালাম ক্যালিফোর্নিয়ায়। লস এঞ্জেলসের সুপিরিয়র কোর্ট ২৮ মার্চ রায় দেয়, কফির কাপে ক্যান্সার-সতর্কতা লিখতে হবে। দানায় গরম পানি ঢেলে বিশেষ কায়দায় (Brewed Coffee) বানানো কফিটাই সারাবিশ্বে জনপ্রিয়। স্টারবাকস, ডানকিনের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো সেভাবে যুগের পর যুগ মানুষের অবসাদে পানি ঢেলে আসছিলো।

ক্যালিফোর্নিয়ায় স্টারবাকস এবং সাথে সেরকম আরো ৯০ টি কোম্পানিকে আদালতের সিদ্ধান্ত মানতে হবে। ১৯৮৬ সালে সে স্টেটে সাধারণ মানুষের ভোটে একটা আইন হয়েছিলো (The Safe Drinking Water and Toxic Enforcement Act), যা প্রোপজিশন ৬৫ নামে বেশি পরিচিত, তাতে বলা হয়েছে যে পণ্যে নির্দিষ্ট ৯০০ প্রকারের রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়, সে পণ্যে যেনো ক্যান্সার সতর্কতা-লেবেল থাকে। এর মানে, ওই রাসায়নিকগুলো ক্যান্সারসহায়ক।

পটেটো চিপসে এক্রিলেমাইড ব্যবহার করা হতো, যা ক্যান্সারসহায়ক। এখন আর করা হয় না। কফির দানাকে রোস্ট করার সময় এক্রিলেমাইড ব্যবহার করা হয়। গবেষকরা বলছেন, এই রাসায়নিক ক্যান্সারের অন্যতম কারণ। বিশেষ করে, ভ্রূণের ক্যান্সারসম্ভাবনা বেশি। এছাড়া, স্তন, যকৃত, প্রোস্টেটসহ শরীরের নানা অঙ্গে ক্যান্সারের কারণ এ রাসায়নিক।
কফি কোম্পানিগুলোর এসোসিয়েশন বলছে, কফির স্বাদ ধ্বংস করে এক্রিলেমাইড সরিয়ে ফেলা সম্ভব নয়।

কফির ক্ষতি নিয়ে দীর্ঘদিন গবেষণা চলছে। ২০০৬ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ক্যান্সারসহায়ক পণ্যের তালিকা থেকে কফিকে বাদ দেয়। এরপরও, বিতর্ক চলছে। ক্যালিফোর্নিয়ার অখ্যাত একটি অলাভজনক সংস্থা আট বছর আগে কফির ক্ষতিকর প্রভাব তুলে ধরে আদালতে মামলা করেছিলো। সেই মামলার রায় হলো গেলো ২৮ মার্চ বুধবার। এ মামলার সূত্র ধরে, কফি কোম্পানিগুলো লাখ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে হতে পারে।
ছবি: এপি

Recommended For You